odol bodol class ten bengali

অদল বদল

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে “অদল বদল” গল্প থেকে এখানে গুরুত্বপূর্ণ কিছু নোট প্রদান করা হলো। শিক্ষার্থীরা নির্দিষ্ট নোটে ক্লিক/টাচ করে নোটগুলি দেখতে পারবে।

 

অদল বদল গল্প থেকে ছোট প্রশ্নের উত্তরঃ

১. ‘সব দিক থেকেই একরকম।’ – কোন্ বিষয়ে একরকম?

উত্তরঃ অমৃত ও ইসাব হোলির দিনে যে নতুন জামাগুলি পরেছিল সেগুলির রঙ, মাপ ও কাপড় একরকম ছিল।

২. ‘তফাত শুধু এই যে’- কী বিষয়ে তফাত?

উত্তরঃ অমৃতের বাবা-মা এবং তিন ভাই ছিল কিন্তু ইসাবের বাবা ছাড়া আর কেউ ছিল না।

৩. ‘মা ওকে অনেক বুঝিয়েছিল’ – কী বলে বুঝিয়েছিল?

উত্তরঃ অমৃতের মা অমৃতকে বুঝিয়েছিল যে, ইসাবকে ক্ষেতে কাজ করতে হয় বলে তার জামা ছিঁড়ে গেছে কিন্তু অমৃতের জামাটা প্রায় নতুনের মতো আছে।

৪. ‘ও স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিল’ – কেন এমন করেছিল?

উত্তরঃ ইসাবের মতো জামা না পেয়ে অমৃত স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিল।

৫. ‘ইসাবের মেজাজ চড়ে গেল।’ -কী কারণে তার মেজাজ চড়ে ছিল?

উত্তরঃ কারণ, কালিয়া একপ্রকার জোর করেই অমৃতের সঙ্গে কুস্তি শুরু করে দিয়েছিল।

৬. ‘কিন্তু আমাকে বাঁচানোর জন্য তাে আমার মা আছে।’ – কেন এই উক্তি?

উত্তরঃ ইসাবের ছেঁড়া জামা দেখে তার বাবা তাকে মারলে বাঁচাবার মতো কেউ ছিল না। কিন্তু অমৃত জানতো যে, তার বাবা তাকে মারলে মা গিয়ে তাকে বাঁচাবে। 

৭. ‘ছেলেরাও কী ঘটেছে জেনে চ্যাঁচাতে লাগল।’- কী বলে ছেলেরা চ্যাঁচাচ্ছিল?

উত্তরঃ ছেলেরা ‘অদল-বদল, অদল-বদল’ বলে চ্যাঁচাচ্ছিল।

৮. কোন্ ঘটনার জন্য ইসাবের বাবা অমৃতকে জড়িয়ে ধরেছিল?

উত্তরঃ ইসাবের বাবা অমৃত-ইসাবের জামা অদল-বদলের ঘটনার সাক্ষী ছিল। সেইজন্য সে অমৃতকে জড়িয়ে ধরেছিল।

৯. “পাঠানের গল্প শােনার জন্য ঘিরে দাঁড়াল।” – কারা ঘিরে দাঁড়াল?

উত্তরঃ পাড়াপড়শী মায়ের দল ঘিরে দাঁড়াল।

১০. ‘অমৃতের জবাব আমাকে বদলে দিয়েছে।’ – কোন জবাব?

উত্তরঃ ইসাবের প্রশ্নের উত্তরে অমৃত জবাব দিয়েছিল যে তার বাড়িতে মা আছে এবং তার বাবা তাকে মারতে এলে মা গিয়ে বাঁচাবে। এখানে এই জবাবের কথা বলা হয়েছে।

১১. ‘গল্প শুনে তাঁদেরও বুক ভরে গেল।’ – কে কোন্ গল্প বলেছিল?

উত্তরঃ ইসাবের বাবা ইসাব ও অমৃতের জামা অদল-বদলের গল্প বলেছিল।

১২. ‘উনি ঘােষণা করলেন’- কী ঘােষণা করেছিলেন?

উত্তরঃ উনি অর্থাৎ গ্রাম-প্রধান ঘোষণা করেছিলেন যে, এরপর থেকে অমৃতকে অদল এবং ইসাবকে বদল বলে ডাকা হবে।

১৩. ‘এই আওয়াজে মুখরিত হয়ে উঠল।’ – কোন্ আওয়াজের কথা বলা হয়েছে?

উত্তরঃ ‘অমৃত-ইসাব অদল বদল, অদল বদল’- এই আওয়াজের কথা বলা হয়েছে।

১৪. ‘অদলবদল’ গল্পটি কে বাংলায় তর্জমা করেন।

উত্তরঃ ‘অদলবদল’ গল্পটি বাংলায় তর্জমা করেন অর্ঘ্যকুসুম দত্তগুপ্ত।

১৫. ‘তা দুজনকে কী করে সামলাবেন?’- এখানে কোন দুজনের কথা বলা হয়েছে?

উত্তরঃ এখানে দুজন বলতে অমৃত এবং ইসাবের কথা বলা হয়েছে।

১৬. ‘সে ওদের আনন্দ মাটি করার জন্য বলল’- ‘সে’ কে?

উত্তরঃ একটি ছেলে ওদের জামা বদলানো দেখেছিল। ‘সে’ বলতে এখানে তার কথা বলা হয়েছে।

১৭. ‘সে ওদের আনন্দ মাটি করার জন্য বলল’- সে কী বলল?

উত্তরঃ সে বলল, ‘তোরা অদল-বদল করেছিস, হুম্।’

১৮. ‘এখন ব্যাপারটা ঘোরালো হয়ে পড়েছে’- কোন ব্যাপারের কথা বলা হয়েছে?

উত্তরঃ কালিয়া ও ইসাবের কুস্তির কথা বলা হয়েছে।

১৯. ‘ওরা ভয়ে কাঠ হয়ে গেল’- ওরা কেন ভয়ে কাঠ হয়ে গেল?

উত্তরঃ ওরা অর্থাৎ অমৃত আর ইসাব ভয়ে কাঠ হয়ে গিয়েছিল; কারণ কালিয়ার সঙ্গে কুস্তি লড়তে গিয়ে ইসাবের জামার পকেট ও ছ’ইঞ্চি পরিমাণ কাপড় ছিঁড়ে গিয়েছিল। 

২০. ‘হঠাৎ অমৃতের মাথায় একটা বুদ্ধি খেলে গেল’- বুদ্ধিটা কীরকম ছিল? 

উত্তরঃ অমৃত ইসাবের ছেঁড়া জামাটা পরে নিজেরটা ইসাবকে দিয়েছিল। 

‘অদল বদল’ গল্পে অমৃত চরিত্রের পরিচয় দাও।

উত্তরটি দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক/টাচ করতে হবে

 

‘অদল বদল’ গল্প থেকে MCQ প্রশ্নের মক টেষ্ট প্রদান করতে এই লিঙ্কে ক্লিক/টাচ করতে হবে 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You cannot copy content of this page