হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলা

হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলা

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে দশম শ্রেণির মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য বাংলা বহুরূপী গল্প থেকে ‘হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলা’ প্রশ্নের উত্তর প্রদান করা হলো। এই ‘হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলা’  প্রশ্নের উত্তর সমাধানের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীরা তাদের পাঠ্য বহুরূপী গল্প সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করতে পারবে। আসন্ন ইউনিট টেস্ট, টেস্ট তথা মাধ্যমিক পরীক্ষায় এই হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলা আলোচনাটি শিক্ষার্থীদের জন্য উপযোগী হবে। 

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের সকল প্রকার আপডেট লাভ করতে মোবাইল স্ক্রিনের বা’দিকের নিম্নের অংশে থাকা বেল আইকনটিতে (🔔) টাচ করে শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের নোটিফিকেশন অন করে রাখুন।

হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্য ।। বহুরূপী ।। দশম শ্রেণি বাংলাঃ 

১) ‘হরিদার জীবনের সত্যিই একটা নাটকীয় বৈচিত্র্য আছে’- হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্রের পরিচয় দাও। ৫ 

উৎসঃ

বাংলা সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় লেখক “সুবোধ ঘোষের” লেখা “গল্পসমগ্র” গ্রন্থের তৃতীয় খন্ড থেকে সংকলিত “বহুরূপী” গল্প থেকে প্রশ্নোক্ত অংশটি গৃহীত হয়েছে।  

হরিদার জীবনের নাটকীয় বৈচিত্র্যঃ 

‘বৈচিত্র’ কথার আক্ষরিক অর্থ হলো ‘বিভিন্নতা’। আর ‘নাটকীয় বৈচিত্র’ বলতে বোঝায় নাটকের মধ্যে আকস্মিকভাবে ঘটতে থাকা নানা চমকপ্রদ ঘটনার বিভিন্নতা। বহুরূপী হরিদার জীবনও ছিল এমনই নানা রঙে ভরা। তার জীবনের সেই সকল বিচিত্র ঘটনার সংক্ষিপ্ত পরিচয় নিম্নে প্রদান করা হলো-  

পাগলরূপী হরিদাঃ 

একদিন দুপুর বেলায় হরিদা উন্মাদ পাগলের বেশে চকের বাসস্ট্যন্ডে আতঙ্কের হল্লা সৃষ্টি করেন। তার চোখ দুটি ছিল লাল, মুখ দিয়ে লালা ঝরছিল, আর এক থান ইট হাতে তুলে নিয়ে বাসের যাত্রীদের দিকে তেড়ে যাচ্ছিলেন। বাসের ড্রাইভার কাশীনাথ ছাড়া তাকে আর কেউ চিনতে পারে নি। 

বাইজিরূপী হরিদাঃ 

একদিন সন্ধ্যাবেলায় পায়ে ঘুঙুর বেঁধে হরিদা বাইজির বেশে শহরের রাস্তায় হাজির হন। নৃত্যের ভঙ্গিতে সেই বাইজিকে নিয়ন আলোয় ভেজা সন্ধ্যার রাজপথে দেখে দকানদারেরা মুগ্ধ হয়ে ফুলের সাজিতে পয়সা দিতে বাধ্য হয়েছিল; যার ফলে তার আট টাকা দশ আনা উপার্জনও হয়। 

পুলিশরূপী হরিদাঃ

একবার পুলিশ সেজে দয়ালবাবু লিচুবাগানে চারজন স্কুলছাত্রকে আটক করেন হরিদা। এরপর স্কুলের মাস্টারমশাই তাকে চিনতে না পেরে আট আনা ঘুষ দিয়ে ছাত্রদের ছাড়িয়ে নিয়ে যান। 

বিরাগীরূপী হরিদাঃ 

হরিদা বিরাগীরূপে প্রতিবেশী জগদীশ বাবুর বাড়িতে হাজির হলে ধর্মভীরু জগদীশবাবু তার রূপ দেখে এবং বাণী শুনে মোহিত হয়ে তাকে তীর্থ ভ্রমণের জন্য একশো এক টাকা প্রদান করতে চান। 

হরিদার অন্যান্য বহুরূপী রূপঃ 

উপরোক্ত সাজগুলি ছাড়াও হরিদা কাপালিক, ফিরিঙ্গি কেরামিন সাহেব, বাউল, কাবুলিওয়ালা সহ নানান সাজে নিজেকে সজ্জিত করেছেন। 

পরিশেষঃ 

উপরিক্ত আলোচনা থেকে বলা যায়, সাধারণ মানুষের জীবন একঘেয়ে নিয়মের বেড়াজ্বালে আবদ্ধ হলেও, হরিদার জীবন ছিল বৈচিত্র্যময়তায় ভরা এক নাটকীয় চিত্রনাট্য। 

বহুরূপী গল্পের আরো প্রশ্নের উত্তর দেখতে এই লিঙ্কটি অনুসরণ করতে হবে 

দশম শ্রেণি বাংলা নোটঃ 

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের কিছু গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক নিম্নে প্রদান করা হলোঃ

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের সকল প্রকার নোট, সাজেশন, প্রশ্নপত্র ও মক টেষ্টের সুবিধা গ্রহণ করতে নিম্নের ছবিতে ক্লিক/টাচ করে বিষদ তথ্য জেনে নাওঃ 

paid courses

You cannot copy content of this page

Need Help?