সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র ।। দশম শ্রেণি বাংলা

সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র ।। দশম শ্রেণি বাংলা

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের পক্ষ থেকে দশম শ্রেণির মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের জন্য ‘সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র ।। দশম শ্রেণি বাংলা’  প্রদান করা হলো। দশম শ্রেণির মাধ্যমিক শিক্ষার্থীরা এই ‘সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র ।। দশম শ্রেণি বাংলা’  প্রশ্ন উত্তরটি অনুশীলনের মধ্য দিয়ে তাদের পাঠ্য নাট্যাংশটি সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ করতে পারবে এবং তাদের মাধ্যমিক পরীক্ষা প্রস্তুতি গ্রহণ করতে পারবে। 

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের সকল প্রকার আপডেট লাভ করতে মোবাইল স্ক্রিনের বা’দিকের নিম্নের অংশে থাকা বেল আইকনটিতে (🔔) টাচ করে শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের নোটিফিকেশন অন করে রাখুন। 

সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র ।। দশম শ্রেণি বাংলাঃ 

৬) সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশ অবলম্বনে সিরাজদ্দৌলার চরিত্র আলোচনা করো। ৫

উৎসঃ 

বিখ্যাত নাট্যকার “শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্ত” রচিত “সিরাজদ্দৌলা” নাট্যাংশের প্রধান চরিত্র হলেন বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজদ্দৌলা। নাট্যাংশের স্বল্প পরিসরে এই ট্র্যাজিক চরিত্রটি সকল পাঠকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন তার যেসকল বৈচিত্রপূর্ণ চরিত্র-বৈশিষ্ট্যাবলীর দ্বারা তা ক্রমান্বয়ে আলোচিত হলো-  

নির্ভীকঃ

বাংলার সিংহাসনকে কেন্দ্র করে যে অনিশ্চয়তার বাতাবরন তৈরি হয়েছিল তাকে সিরাজদ্দৌলা নির্ভীকচিত্তে দমন করতে উদ্যোগী হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের তিনি কঠোরভাবে তার মনোভাব উপলব্ধি করাতে সক্ষম হয়েছেন।

বিনয়ীঃ

ফরাসী প্রতিনিধি মসিয়ে লার সাথে কথোপকথনে, তার সভাসদদের প্রতি আবেদনে কিম্বা ঘসেটি বেগমের সাথে বাক্যালাপকালে আমরা সিরাজদ্দোউলার বিনয়ী স্বভাবের পরিচয় লাভ করি।

আবেগপ্রবণঃ

আবেগপ্রবণ সিরাজ তার প্রিয়তমা পত্নী লুৎফার সাথে কথোপকথনে আবেগপ্রবণ হয়ে উঠেছেন। তিনি নিজের ভুল স্বীকার করে নিয়ে তার সভাসদদের কাছেও এই বিপদে তাকে ত্যাগ না করার আবেদন জানিয়েছেন আবেগমথিত কন্ঠে।

আত্মসমালোচনাঃ

বাংলার ঘোর দুর্যোগের জন্য সিরাজদ্দৌলা নিজেকেই দায়ী করে আত্মসমালোচনার সুরে বলে উঠেছেন- “অপরাধ আমি যা করিচি, তা মিলিত হিন্দু-মুসলমানের কাছেই করিচি।” 

স্বদেশপ্রেমীঃ

স্বদেশের দুর্দিনে সিরাজ সকল মতভেদ ভুলে তার বিরুদ্ধাচারণকারীদেরও ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান জানিয়েছেন- “বাংলার মান, বাংলার মর্যাদা, বাংলার স্বাধীনতা রক্ষার প্রয়াসে আপনারা আপনাদের শক্তি দিয়ে, বুদ্ধি দিয়ে, সর্বরকমে আমাকে সাহায্য করুন।”

সৌহার্দ্যবোধঃ

জাতি-ধর্ম-বর্ণের উর্ধে সিরাজদ্দৌলা সকলকে সৌহার্দ্য স্থাপনের আহ্বান জানিয়ে বলেছেন-“আজ বিচারের দিন নয়, সৌহার্দ্য স্থাপনের দিন।”

কর্তব্যবোধঃ

কর্তব্যপরায়ণ সিরাজদ্দৌলা দেশের স্বার্থে তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীদের ক্ষমা করে তাদের ঐক্যবদ্ধ হবার আহ্বান জানিয়েছেন।

দুরদর্শীঃ

দুরদর্শী সিরাজদ্দোউলা যেন বাংলার ভবিষ্যতকে প্রত্যক্ষ করতে পেরেছিলেন। তাই তার কন্ঠে আমরা শুনতে পাই- “জানি না, কার রক্ত সে চায়। পলাশি, রাক্ষসী পলাশি।”

এইরূপে সিরাজদ্দৌলা চরিত্রটি তার বিবিধ চরিত্র বৈশিষ্ট্যের সমন্বয়ে আমাদের আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দুতে অধিষ্ঠান করেছেন।

সিরাজদ্দৌলা নাট্যাংশের আরো প্রশ্নের উত্তর দেখতে এই লিঙ্কে ক্লিক/টাচ করতে হবে 

madhyamik-2025-bengali-suggestion

দশম শ্রেণি বাংলা নোটঃ 

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের কিছু গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্ক নিম্নে প্রদান করা হলোঃ

শিক্ষালয় ওয়েবসাইটের সকল প্রকার নোট, সাজেশন, প্রশ্নপত্র ও মক টেষ্টের সুবিধা গ্রহণ করতে নিম্নের ছবিতে ক্লিক/টাচ করে বিষদ তথ্য জেনে নাওঃ 

paid courses

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিষয়ে সহায়তা লাভ করতে নিম্নের ছবিতে ক্লিক/টাচ করতে হবেঃ 

scijroy.in

You cannot copy content of this page

Need Help?